Top Stories
  1. স্বাধীনতা সংগ্রামী কৌতুক সম্রাট ভানু বন্দোপাধ্যায়ের মৃত্যু দিবসে শিলিগুড়ি বার্তার বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি 
  2. আবার নৃশংসতা অসমে, বাংলার দুই শ্রমিকের গলার নলি কেটে খুন , হাত কেটে ফেলা আরও দুজনের 
  3. भारत के कुछ मेट्रोपोलिटन शहरों में पेट्रोल - डीजल की कीमत में उतार - चढ़ाव 
  4. बागडोगरा में घटी दुर्घटना में सिविक पुलिस ने घायल महिला को पहुंचाया 'फर्स्ट ऐड' 
  5. भारत के कुछ मेट्रोपोलिटन शहरों में पेट्रोल - डीजल की कीमत में उतार - चढ़ाव 
  6. व्हाट्सअप का यह नया फीचर रखेगा आपकी चैट्स को सुरक्षित, जानिए कैसे... 
  7. भारत के कुछ मेट्रोपोलिटन शहरों में पेट्रोल - डीजल की कीमत में उतार - चढ़ाव 
  8. आईपीएल संबंधित एलान , भारत में ही खेला जाएगा २०१९ का आईपीएल
  9. भारत के कुछ मेट्रोपोलिटन शहरों में पेट्रोल - डीजल की कीमत में उतार - चढ़ाव 
  10. भारत के कुछ मेट्रोपोलिटन शहरों में पेट्रोल - डीजल की कीमत में उतार - चढ़ाव 
news-details
Sports

স্বাধীনতা সংগ্রামী কৌতুক সম্রাট ভানু বন্দোপাধ্যায়ের মৃত্যু দিবসে শিলিগুড়ি বার্তার বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি 

স্বাধীনতা সংগ্রামী কৌতুক সম্রাট ভানু বন্দোপাধ্যায়ের মৃত্যু দিবসে শিলিগুড়ি বার্তার বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি 

শিলিগুড়ি বার্তা ডেস্ক : 

ঢাকায় ১৯২০ সালে সাম্যময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম । মা সুনীতি বন্দ্যোপাধ্যায়। ছিলেন প্রথম মহিলা স্কুল ইন্সপেকট্রেস, বাবা জিতেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, ছিলেন ব্রিটিশ স্টেটের উচ্চপদস্থ চাকুরে। ছেলেবেলা থেকেই ছিলেন রাজনৈতিক সচেতন ‘অনুশীলন সমিতি’র সদস্য । শহিদ বিনয়-বাদল-দীনশের সঙ্গে দারুণ হৃদ্যতা ছিল তাঁর।  দীনেশ গুপ্তকে তিনি ঈশ্বরজ্ঞানে পুজো করতেন।  সমাজতন্ত্রের আদর্শে গভীর বিশ্বাস ছিল, গর্ব করে বলতেন, ‘আমার দাদু আমার নাম রেখেছিলেন সাম্যময়... আই আমি কমিউনিস্ট।  শিল্পীদের স্বার্থরক্ষায় সংগঠন তৈরি করেছেন অভিনয় জীবনের সময়েই। ইন্দ্রপুরী স্টুডিয়োতে যখন ধর্মঘট হয়েছিল, তখন অন্যান্যদের সঙ্গে তিনি ও অভিনেতা ছবি বিশ্বাস যুক্ত হন ‘সিনে টেকনিশিয়ান্স অ্যান্ড ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন’-এর আন্দোলনে। সত্যজিৎ রায়ের ‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’ ছবির রিলিজ় নিয়ে জটিলতা তৈরি হলে পরিচালকের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।  প্রযোজকদের একচেটিয়া আধিপত্যের বিরুদ্ধে বারবার রুখে দাঁড়িয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কারণে একটা সময় বছর পাঁচেক তাঁকে ব্ল্যাক লিস্ট করে দেওয়া হয় চলচ্চিত্র জগতে।  কিন্তু তিনি আপোসের রাস্তায় না হেঁটে ছায়াছবি ছেড়ে জোর দেন জলসা, কৌতুক নকশার রেকর্ড, যাত্রা, বোর্ড থিয়েটারে। তার আগেই চাকরি ছেড়েছেন,  সন্তানের পড়াশোনা, সংসার সব কিছু সামলাতে প্রচন্ড পরিশ্রম করতে হয়েছে তাঁকে, শরীর খারাপ হয়েছে, কিন্তু হার মানেননি।  

ঢাকায় পড়েন জগন্নাথ কলেজে লেখাপড়ারর সময় বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বোসের খুব স্নেহধন্য ছিলেন। 

 সারা জীবনে অন্য কোনও বিষয়ে অহঙ্কার ছিল না, কিন্তু কবি মোহিতলাল মজুমদার, কবি জসীমুদ্দিন, ডাঃ রমেশচন্দ্র মজুমদারদের মতো দিকপাল মাস্টারমশাইদের এই স্নেহ-ভালোবাসা নিয়ে খুব গর্ব করতেন ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়

জনপ্রিয়তায় তিনি সমানে সমানে টেক্কা দিতেন উত্তমকুমার, সুচিত্রা সেনের সঙ্গে। তাঁকে দেখার জন্য ভিড় জমিয়ে আসত সাধারণ মানুষ।

সমাজতান্ত্রিক ভাবধারায় বিশ্বাসী ভানু স্কুলে পড়ার সময় থেকেই অবলীলায় মেলামেশা করতেন ঢাকার গাড়োয়ানদের সঙ্গে। 

 

অভিনয় জীবনে ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় শুধু কৌতুকশিল্পী ছিলেন এমন নয়, ‘সিরিয়াস’ অভিনয়েও তিনি ছিলেন অনবদ্য। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত কলকাতায় কাটালেও নিজেকে ঢাকার ‘পোলা’ হিসেবে পরিচয় দিতে তিনি গর্ব বোধ করতেন।

ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের শেষ চলচ্চিত্র ‘শোরগোল’। ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল ১৯৮৪ সালে। এর কিছু দিন আগেই, ৪ঠা মার্চ, ১৯৮৩— উনি প্রয়াত হয়েছিলেন। আজীবন আপামর বাঙালিকে হাসিয়ে নিজের শেষযাত্রায় উনি সবাইকে কাঁদিয়ে চিরবিদায় নিলেন। ব্যক্তি জীবনে খুবই গম্ভীর প্রকৃতির মানুষ ছিলেন, যদিও রসবোধ ছিল ষোলআনা। সে জন্যই হয়তো মানুষকে আনন্দ দেওয়ার একটা সহজাত প্রতিভা তাঁর ছিল। তবে বাঙালি যত দিন থাকবে, বাংলা চলচ্চিত্রের গগনে এই ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় যে থাকবেন স্বমহিমায় তাতে কোনও সন্দেহ নেই।

 

প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা শ্রদ্ধেয় ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় কে সশ্রদ্ধ প্রণাম।

You can share this post!

Comments System WIDGET PACK

Download Our Android App from Play Store and Get Updated News Instantly.