Top Stories
  1. বাড়ি এলেও কথা বললেন না যোগীঃ মুখ্যমন্ত্রী এড়িয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ শহীদের স্ত্রী
  2. কলকাতার নতুন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা 
  3. সাংসদ হিসাবে পাওয়া ৩ মাসের বেতন সেনা তহবিলে দান করলেন যুব তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।
  4. চলে গেলেন সঙ্গীতশিল্পী প্রতীক চৌধুরী
  5. বেঙ্গল ন্যাশনাল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ উত্তরবঙ্গের শিল্পপতিদের পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন।
  6. পথ দুর্ঘটনায় মৃত দুই
  7. যেকোনো মুহূর্তে ফের পুলওয়ামা হামলার মতো ঘটনা ঘটাতে পারে জইশ-ই-মহম্মদ
  8. ফের প্রমাণ দিল সেই কাশ্মীর,তবে নাশকতায় নয়,সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে চেয়ে পরীক্ষা দিলেন ২৫০০ কাশ্মীরি যুবক।
  9. স্থায়ী ফুল বাজারের দাবি তুলল শিলিগুড়ি হর্টিকালচারাল সোসাইটি
  10. গুজবের জের। এক যুবককে গাছে বেধে মারধোর গ্রামবাসিদের
news-details
State

বাংলা কি অস্ত্র কারখানার আতুর ঘর, উঠছে প্রশ্ন

বাংলা কি অস্ত্র কারখানার আতুর ঘর, উঠছে প্রশ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা,০৯ ফেব্রুয়ারি : ফের আবারও অস্ত্র তৈরিকরনের কারখানার হদিস মিলল বাংলায়।।নারকেল ডাঙ্গা, হলদিয়ার পর এবার গড়বেতায়।এক মাসও অতিক্রান্ত হয়নি তার মধ্যেই আরেক অস্ত্র কারখানার হদিস মিলল পশ্চিমবাংলায় । শুক্রবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গড়বেতা থানা এলাকা থেকেই মিলল এই কারখানার হদিস । উদ্ধার হয়েছে অস্ত্র বানানোর সরঞ্জাম সহ অস্ত্রও । গ্রেপ্তার করা হয়েছে কারখানার মালিক নুর হাসানকে।
পুলিশ জানিয়েছে , গড়বেতার খড়কুসুমার ওই কারখানা থেকে সদ্য তৈরি হওয়া একটি বন্দুকসহ অস্ত্র তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম এবং বেশ কিছু কার্তুজ উদ্ধার করেছেন তাঁরা । 
পুলিশ সুত্রে জানা গেছে বেশ কিছু দিন আগে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র সমেত গ্রেপ্তার করে এক ব্যক্তিকে । সেই অস্ত্র কোথা থেকে এল এরই উৎস সন্ধান করতে গিয়েই মেলে এই কারখানার হদিস । 
সূত্র হাতে আসার পরই শুক্রবার রাতে গড়বেতা থানার পুলিশকে নিয়ে খড়্কুশমা গ্রামে অভিযান চালায় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পুলিশ । খড়্কুশমা গ্রামের নূর হোসেন দালাল নামে এক ব্যক্তি কাঠের আসবাবপত্র তৈরির আড়ালেই এই ব্যবসা চালিয়ে আসছিল বলে খবর ছিল পুলিশের কাছে । আর সেই মতই তার বাড়িতে গিয়েই মেলে এই অস্ত্র কারখানার হদিশ। 
পুলিশ অভিযুক্ত নূর হোসেন দালাল কে গ্রেপ্তার করেছে সঙ্গে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে সমস্ত কিছুই । এর পিছনে অন্য কোন বড় চক্র আছে কিনা তার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।
উল্লেখ্য ১৯৯৮ সাল অর্থাৎ তৃণমূল কংগ্রেসের জন্মলগ্ন থেকেই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের কারনে সংবাদের শিরোনামে থেকেছে গড়বেতা । ছোট আঙারিয়া থেকে বেনাচাপড়া রক্ত এবং প্রানহানীর কলঙ্কিত অধ্যায় । কখনও লাশ পড়েছে সিপিএম তো কখনও তৃণমূলের । 
বাম শাসনের অবসানের পর গড়বেতা এখন তৃণমূল রাজের অধীন । অল্প স্বল্প হলেও মাথা তুলছে বিজেপি সহ বিরোধীরা । সামনেই লোকসভা নির্বাচন । এককালে রাজনৈতিক দুর্বিত্তদের হাতে অস্ত্র তুলে দেওয়া গড়বেতার সেই খড়কুসুমা আবার জেগে উঠছে কিনা সেটাই এখন দেখার ।

You can share this post!

Comments System WIDGET PACK

Download Our Android App from Play Store and Get Updated News Instantly.