Breaking News

কুমারগঞ্জ গণধর্ষণকাণ্ডের তদন্তে আসলেন তপশিলি জাতি আয়োগ এর চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল

Image
 

কমল কুমার বিশ্বাস ,বালুরঘাট ,13 ই জানুয়ারি :-  দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ থানা এলাকায় গণ ধর্ষণ করে গলা কেটে কিশোরী খুন এবং প্রমাণ লোপাট করার উদ্দেশ্যে মোটরবাইক থেকে পেট্রোল ঢেলে জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনায় গত রবি বার দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় আসেন তপশিলি জাতি আয়োগ এর চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। সেই প্রতিনিধি দল মৃতার বাড়িতে গিয়ে খোঁজ খবর নেন এবং জেলার প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গেও বিস্তর আলোচনা করেন তদন্তের গতি প্রকৃতি নিয়ে।

 কেন্দ্রীয় তপশিলি জাতি আয়োগের প্রতিনিধি মন্ডলীর প্রধান ডক্টর যোগেন্দ্র পাসোয়ান প্রশাসনের  কাছে জানতে চান এসিএসটি অ্যাক্টের ধারাগুলি কেন তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োগ করা হয়নি। তিনি আরো নির্দেশ দেন SC ST এক্ট এর 325 ও 31w -ll ধারা সংযোজনের।  সেই নির্দেশ মোতাবেক আজ তদন্তকারী অফিসার কে সরিয়ে দিল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিশ প্রশাসন। প্রথমে এই মামলার তদন্তকারী অফিসার ছিলেন কুমারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সঞ্জয় মুখার্জী। প্রথমে তাকে সরিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল সি.আই সুকুমার মিশ্রকে এবং শেষমেষ  তাকেও সরিয়ে দিয়ে নতুন করে দায়িত্বভার দেওয়া হয়েছে ডিএসপি পদমর্যাদার পুলিশ অফিসার বিনোদ ছেত্রীকে (পুলিশ সূত্রে খবর )।
         যদিও আইন বিশেষজ্ঞরা এবিষয়ে জানাচ্ছেন যে , SC ST এক্ট চালু হলে সেই মামলার তদন্ত ন্যূনতম ডি.এস.পি পদমর্যাদার পুলিশ আধিকারিককে দিয়েই করানোর নিয়ম।

Share With:


Leave a Comment

  

Other related news