news-details
Siliguri

ভুয়ো পরিচয় দিয়ে একাধিক বার বিবাহ, গ্রেপ্তার প্রতারক


শিলিগুড়িবার্তা ওয়েবডেস্ক, ০৬ ডিসেম্বর : ভুয়ো পরিচয়ে একাধিক বিয়ে ও প্রতারনার অভিযোগে গ্রেপ্তার হল এক ব্যক্তি। সোমবার ওই ব‍্যক্তিকে দীঘার হোটেল থেকে সরশুনা থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে। 


উল্লেখ্য যে, গত তিন মাস থেকেই প্রচুর অভিযোগ জমা পড়ছিল অভিযুক্তর নামে। এই অভিযুক্ত ব্যক্তি দ্বৈত পরিচয়ের অধিকারি। কেউ তাঁকে চেনে অভিজিৎ মন্ডল নামে আবার কেউ চেনে শেখ মুজিবর রহমান নামে। অসম্ভব করিতকর্মা সম্পন্ন এই ব্যক্তি। প্রথমে ভুয়ো পরিচয়ে বিয়ে করত। তারপর নিজেকে সি আর পি এফের পরিচয় দিয়ে স্ত্রীর আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে সরকারি চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নিতো। এরপর টাকার জোগার হয়ে গেলেই বন্ধ করে দিত যোগাযোগ। বদলে ফেলত মোবাইলের নাম্বার।


পুলিশ সূত্রে খবর মুজিবর ওরফে অভিজিৎ মন্ডলের বাড়ি বীরভূমের লাভপুরে। আসলে আদতে পেশায় সে লড়ির চালক। কিন্তু নিজেকে পরিচয় দিত সি আর পি এফের জওয়ান হিসাবে। তিনি তিনটে বিয়ে করেন মুসলিম পরিচয় ব্যবহার করে এবং একটি হিন্দু বিয়ে করেন হিন্দু পরিচয়ে। এখানেই শেষ নয় আরও তিনটি বিয়ে করার জন্য প্রস্তুতি নিছিল সে। কিন্তু সেই গুড়ে বালি ঢেলে দেয় সরশুনা থানার পুলিশ। জানা গেছে, সংবাদ পত্রে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে পাত্রী জোগার করত। মুলত গরীব ঘরের মেয়েরাই ছিল অভিযুক্তের লক্ষ্য। পরবর্তীতে সরশুনার বাসিন্দা এক তরুণী আগস্টে অভিযোগ করে এই যুবকের বিরুদ্ধে। বছর খানেক আগে নাম ভাড়িয়ে হিন্দু বলে এই তরুণীর সাথে বিয়ে করে অভিজিৎ ওরফে মুজিবর। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তদন্তে নেমে সামনে আসে আরও রোমাঞ্চকর তথ্য। অভিযুক্তের ভোটার কার্ডে নাম ছিল অভিজিৎ মন্ডল এবং আধার কার্ডে নাম ছিল শেখ মুজিবর রহমান। আর তাঁর বাকি তিন স্ত্রী বর্ধমানের বাসিন্দা। চাকরি দেওয়ার নাম করে আত্মীয়দের কাছ থেকে নিয়েছিল প্রায় কুড়ি লক্ষ টাকা। এছাড়া সে ছটা মোবাইল নম্বর ব্যবহার করত এই সব কাজে। এদিন গোপন সূত্রে পুলিশ জানতে পারে দীঘার এক হোটেলে রয়েছে মুজিবর। অতএব সেই মাফিক সোমবার সেখানে হানা দিয়ে গ্রেপ্তার করে তাঁকে তদন্তকারীরা। বুধবার সকালে অভিযুক্তকে তোলা হয়েছে আলিপুর আদালতে বলে জানা গেছে।

You can share this post!

Comments System WIDGET PACK

Download Our Android App from Play Store and Get Updated News Instantly.