Breaking News

২১শে ফের আকাশে উড়বে সবুজ আবির,উন্নয়নের জোয়ারে ভাসবে রাজ্য : গৌতম দেব

Image
 

ভাস্কর বাগচী,শিলিগুড়ি:যিনি কোনোদিনও ভাবেননি রাজনীতি করে এত বড় মাপের নেতা হয়ে যাবেন।হ্যাঁ তিনি অন্য কেউ নন, শিলিগুড়ি ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা গৌতম দেব।আজ যাকে আমরা পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব নামে চিনি।তিনি স্বপ্ন দেখতেন পড়াশোনা শেষ করার পর ওকালতি করবেন।পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের পরিবারের সবাই আইন বিভাগের সঙ্গেই যুক্ত।তাই তিনিও পড়াশোনা শেষ করে ওকালতি শুরু করেন।ছোটবেলা থেকেই তিনি ছিলেন জনদরদী,পাড়া প্রতিবেশীরা কোনো সমস্যায় পড়লে তিনি ছুটে যেতেন তাদের সাহায্য করতে।এভাবেই তিনি সমাজের কাছে পরিচিতি লাভ করেন।

রাজনীতির সঙ্গে তিনি কোনোভাবেই কোনোদিনও যুক্ত হতে চাননি,তবুও তিনি রাজনীতিতে।কলেজ জীবন থেকেই গৌতম দেবের রাজনীতি শুরু হয়।কলেজের ছাত্র -ছাত্রীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সবসময় তিনি এগিয়ে আসতেন।রাজনীতির প্রথম অধ্যায় তার কংগ্রেস থেকে শুরু হয়।বাম আমলে তিনি বিরোধী হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।যখন শিলিগুড়ি বামদুর্গ ছিল,একমাত্র তিনি একাকুম্ভের মতো সংগঠনের সমস্ত দায় দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নিয়ে অন্যায়ের বিরুদ্ধে,সাধারণ মানুষের ন্যায্য দাবীতে লড়াই শুরু করেন।


তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন তৃণমূল দল গঠন করেন,সেইসময় নেত্রীর হাত শক্ত করতে তিনি তৃণমূল দলে যোগদান করেন।এরপর শুরু হয় সংগ্রাম।সবুজ বিপ্লব ঘটানোর লড়াইয়ে সামিল হন গৌতম দেব।তিনি মমতা ব্যানার্জীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দিবারাত্র এক করে সংগঠনের কাজ শুরু করেন।তার কাজে খুশি হয়ে দলের তরফে গৌতম দেবকে জেলা সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়।এরপর থেকে তিনি মিটিং,মিছিল, সভা,সমিতি করে সংগঠনকে বড় আকার দেন।সবার কাছে তৃণমূল দলের আদর্শ প্রচারিত করেন।শিলিগুড়ি ১৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে তৃণমূল দলের হয়ে তিনি কাউন্সিলর হিসেবে ভোটে প্রতিদ্বন্দিতা করে বিপুল ভোটে জয় লাভ করেন।


২০১১ সালে গৌতম দেব বিধায়ক হিসেবে বাম হেভিওয়েট নেতা অশোক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে নির্বাচনে দাঁড়ান।মানুষ চেয়েছিল শহরের উন্নতি,রাস্তাঘাট, পানিয়জল,পরিস্কার একটি শহর,এই শহর যেন সন্ত্রাসমুক্ত হয়।তিনি মানুষের সেই আস্থা রেখেছেন।২০১১ সালে তিনি বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন।এরপর শুধুই পথচলা।উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী হওয়ার পর তিনি শিলিগুড়ি সহ সমগ্র উত্তরবঙ্গের উন্নয়নে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন।রাস্তাঘাট, পানিয়জল সমস্ত ক্ষেত্রেই তিনি জনগণের মন জয় করেছেন।ভালো কাজের সুবাদে ফের তিনি ২০১৬ সালে বিধায়ক হিসেবে নির্বাচনে জয়লাভ করেন।দল তার উপর ভরসা করে পর্যটন মন্ত্রী দায়িত্ব দেন।বিগত তিন বছর ধরে পর্যটন শিল্পে রাজ্যে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন।বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোকজন রাজ্যে পর্যটনের টানে ছুটে আসছেন।

২০২১ এ ফের বিধানসভা নির্বাচন।এইcকে পাখির চোখ করে ভালো ফলাফল করার জন্য রণকৌশল তৈরি করছেন পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব।তিনি শিলিগুড়ি শহরের প্রতিটি ওয়ার্ডে "দিদি কে বলো" প্রচার চালাচ্ছেন।তিনি জানান এই প্রচারের ফলে সাধারণ মানুষের সাথে জনসংযোগ তৈরি হচ্ছে।এতে সাধারণ মানুষ খুবই খুশি।তিনি ১০০ শতাংশ আশাবাদী ২০২১ এর বিধানসভায় ফের ঘটবে সবুজ বিপ্লব।ফের আকাশে উড়বে সবুজ আবির।ফের উন্নয়নের জোয়ারে ভাসবে রাজ্য।

Share With:


Leave a Comment

  

Other related news