news-details
Nation

দেশের পর এবার বিদেশেও বিতর্ক প্যাটেল মূর্তি ঘিরে, ক্ষোভ ব্রিটেনে

শিলিগুড়িবার্তা ওয়েবডেস্ক, ০৫ নভেম্বর : বিশ্বের সর্বোচ্চ মূর্তি বসানোর কৃতিত্ব নেওয়ার বদলে বিশ্বজুড়ে বিতর্কের মুখে মোদী সরকার। দেশের উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য বিদেশী সাহায্য নিয়ে ঘুর পথে সেই টাকায় মূর্তি বসানো হচ্ছে বলে দাবী করল ব্রিটেন।


উল্লেখ্য যে, ব্রিটেনের কিছু সংবাদপত্র ও সাংসদ তীব্র  ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছে ব্রিটেনের নাগরিকরা তাদের করের টাকা দিয়েছেন ভারতবাসীর উন্নয়নের জন্য। আর ভারত সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য আমাদের দেশের কাছে অর্থ সাহায্য চেয়েছে এবং ব্রিটেন সেই সাহায্য করেছে। অথচ সেই ভারত সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যয় করছে মূর্তি বসাতে! এমন সরকারকে সাহায্য করে ব্রিটেনের কি লাভ যারা মূর্তির পেছনে টাকা ঢালে?  তার মানে তো পরিষ্কার যে তাদের সাহায্যের প্রয়োজন নেই।
 

ব্রিটেন থেকে প্রকাশিত একটি প্রথম সরকারি সংবাদপত্রে প্রকাশিত নিবন্ধে বলা হয়েছে, "৫৬ মাস ধরে বিশ্বের সর্বোচ্চ মূর্তি গড়ার কাজ হয়েছে। ওই বছরগুলিতে ব্রিটিশ করদাতারা ভারতকে প্রায় ১১৭ কোটি পাউন্ড (প্রায় ১১ হাজার ৭৫ কোটি টাকা) অর্থসাহায্য করেছেন।" এছাড়া সংবাদপত্রটির দাবি, ২০১২ সালে মূর্তি তৈরির কাজ শুরুর বছরে ৩০ কোটি পাউন্ড আর্থিক অনুদান দেয় ব্রিটেন। তার পরের তিন বছরে দেওয়া হয়েছে যথাক্রমে ২৬ কোটি, ২৮ কোটি ও ১৮.৫ কোটি পাউন্ড। অনুদানের টাকা মূর্তি তৈরিতে সরাসরি খরচ হয়নি ঠিকই, কিন্তু এক হাতে সাহায্য নিয়ে অন্য হাতে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মূর্তি গড়েছে ভারত।"

এছাড়া ব্রিটিশ এমপি পিটার বোন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘‘ভারত আর্থিক অনুদান নিচ্ছে। আবার বিরাট অঙ্কের অর্থ খরচ করছে মূর্তি গড়ে তুলতে। এটা নির্বুদ্ধিতা ছাড়া কিছু নয়।’’ তাঁর মন্তব্য, ‘‘এই ঘটনা বুঝিয়ে দিচ্ছে, ভারতকে আর্থিক অনুদান দেওয়ার প্রয়োজন নেই। অর্থ কী ভাবে খরচ করবে সেটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার, কিন্তু এত বড় মূর্তি যদি তারা বানাতে পারে, তা হলে এটা স্পষ্ট যে ওদের সাহায্যের কোনও প্রয়োজন নেই।’’ দেশের বিরোধী রাজনীতিকরা আশংকা প্রকাশ করেছেন যে মূর্তি গড়া নিয়ে এই বিতর্ক যদি বিশ্বজুড়ে তাৎপর্যতা লাভ করে তবে আগামীদিনে ভরতের পক্ষে বিদেশী সাহায্য লাভ কঠিন হয়ে পড়বে। আর এটা ঠিক যে বিদেশী সাহায্য নিয়ে ভারত কি খাতে খরচ করবে তা বিদেশী কেউ ঠিক করতে পারেনা কিন্তু যদি বিদেশের নাগরিকরা মূর্তি গড়ার বিলাসিতা নিয়ে কটাক্ষ করে তাদের করের টাকা ভারতকে সাহায্য করা যাবেনা বলে তাদের দেশের অভ্যন্তরে জনমত গঠন করে তবে সেই সরকারের পক্ষে ভারতকে সাহায্য করা কঠিন হয়ে পড়বে।

You can share this post!

Comments System WIDGET PACK