Breaking News

সম্প্রতির শ্রেষ্ঠ নজির সূর্য পুজাতে, মুসলিম  গৃহবধূর দানের কলাগাছ নিয়ে হলো বাঙ্গীটোলার সূর্যপুজা।

Image
 

নিউজডেস্ক, শিলিগুড়িবার্তা, ২০ই জানুয়ারি :  ধর্ম নিয়ে  গোটা  ভারতবর্ষে  বিভিন্ন রাজনৈতিক  দল যখন  নিজেদের মধ্যে  ভেদাভেদি ও কাজিয়াতে ব্যাস্ত  ঠিক তখনই  কালিয়াচক দুই নং ব্লকে বাঙ্গীটোলা গ্রামে  সূর্য পূজা কে কেন্দ্র  করে  ।দেখা গেলো  দুই ধর্মের  সম্প্রীতির বার্তা ।মুসলিম গৃহবধূর দেওয়া  কলাগাছ ও ভোগরাগের মধ্যে  দিয়ে  হয়ে গেলো সূর্য পুজা  । 

প্রতি বছর মাঘ মাসের প্রথম  রবিবার  এই সূর্য পুজার আয়োজন  করা হয়  । গ্রাম বাঙলার  বিভিন্ন  গ্রামে  এই পূজা  হয়। বাঙ্গীটোলা  গ্রামে  এই পূজা  হয়  মিশ্র  পরিবারে।গ্রামের সব মহিলা  ও পুরুষ  সারা দিন উপবাস  থেকে  সূর্য  দেবের আরাধনা করে। মাটি থল বানিয়ে  তিনটি  কলাগাছ  পুতে সূর্যদেবের আরাধনা  করা হয় । এলাকার  হিন্দু  মুসলমান  এবাই এই বিশ্বাস  করে। বাঙ্গীটোলা  গ্রামের পাশেই গোবিন্দগঞ্জ গ্রাম।এই গ্রামের গৃহবধূ  আফসেনা  খাতুন।


আফসানা   তেরো মাসের সন্তান তো ঠিক আহম্মদ । বাচ্চাটির  জন্মের পর নানা  অসুখে  জর্জরিত  থাকতো । কিছু  দিন আগে  স্বপ্নাদেশ  পেয়ে  মিশ্র  পরিবারের  দূর্গা  মন্ডবে  এসে আফসানা মানত করে যে ছেলে ভালো হলে কলাগাছ  দিয়ে  সারা  দিন উপবাস  থাকবো । সেই মতো আজ সারা  দিন উপবাস থেকে  কলাগাছ  ও ভোগ রাগ দেয় আফসানা ।

এর পর শিশু  টি ভালো  হয়  । এখন ভালো  আছে । তাই শিশুর মা কাসমিরা  বিবি  সারা দিন উপবাস  করে  কলাগাছ  দান করে এই পূজাতে  অংশগ্রহণ  করে । আফসেনা জানায় " আমাদের  ছেলেরা  ছোটো থেকেই  অসুস্থ  ছিলো । আমরা  বাড়ির বড়দের কাছে শুনেছি  যে বাঙ্গীটোলার সূর্যপূজাতে কলাগাছ  দিয়ে  উপবাস  করলে ভালো  হয়ে  যাবে । আমরা  তাই উপবাস  করে কলাগাছ দান করে এই পূজাতে অংশগ্রহণ করেছি ।

Share With:


Leave a Comment

  

Other related news